শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০৭:০৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
মন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে গিয়ে আ.লীগ নেতার আইফোন চুরি শক্তিশালী হাজীগঞ্জ উপজেলাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে শাহরাস্তি উপজেলা তালাবদ্ধ ঘরে মা ও দুই ছেলের লাশ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে ৭৬ ছাত্রীকে সাইকেল দিলো ছাত্রলীগ নিয়োগের ফাইল স্বাক্ষরে কর্মকর্তাদের দিতে হয় টাকা —- প্রধান শিক্ষক আবু তাহের ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালিত। জলাতঙ্ক প্রতিরোধে মানুষের আচরণ পরিবর্তন করতে হবে: রাষ্ট্রপতি চোখ উঠা রুগীদের যে নির্দেশনা দিল বিমানবন্দর কতৃর্পক্ষ পঞ্চগড়ে নৌকাডুবিতে প্রাণহানি : রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক নির্ধারিত দামে মিলছে না ভোজ্যতেল ও চিনি

নৌকাকে হারিয়ে জিতলেন ‘নজরুল ইসলাম ঋতু ( তৃতীয় লিঙ্গ বা হিজড়া)

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ১৬৭ বার পঠিত
আপডেট : রবিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২১, ৯:৫৪ অপরাহ্ণ

 

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে তৃতীয় লিঙ্গ বা হিজড়া চেয়ারম্যান প্রার্থী জয়ী হয়েছে। উপজেলার ৬নং ত্রিলোচনপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বড় ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন নজরুল ইসলাম ঋতু। তার প্রতীক ছিল আনারস। এ ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন নজরুল ইসলাম ছানা ও হাতপাখা প্রতীকের মাহবুবুর রহমান।

রোববার (২৮ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত ভোটে আনারস প্রতিকে নজরুল ইসলাম ঋতু ৯৫৩৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী নৌকা প্রতীকের নজরুল ইসলাম ছানা পেয়েছেন ৪৪০৪ ভোট। বিজয়ী চেয়ারম্যান ঋতু উপজেলার ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের দাদপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের সন্তান। তার আরও তিন ভাই ও তিন বোন রয়েছে। তিন ভাই ঢাকাতে থাকেন এবং বোনদের বিয়ে হয়ে গেছে।

জন্মের পর তৃতীয় লিঙ্গ প্রকাশ পাওয়ায় ৭ বছর বয়সে তাকে গ্রাম ছেড়ে ঢাকা চলে যেতে হয়। সামান্য লেখাপড়া করলেও সামাজিক নানা প্রতিবন্ধকতায় প্রাথমিকের গণ্ডি পেরোনো হয়নি। ছোটবেলা থেকেই ঢাকার ডেমরা থানায় তার দলের গুরুমার কাছেই বেড়ে উঠা। এখন তার বয়স ৪৩ বছর।

ঢাকায় থাকলেও পরিবারের টানে প্রায়ই বাড়িতে আসেন। তার কষ্টার্জিত জমানো অর্থ দিয়ে বিগত প্রায় ১৫ বছর ধরে জন্মস্থান দাদপুর গ্রামসহ ইউনিয়নবাসীর উন্নয়নে আর্থিক সহযোগিতা করছেন। এ পর্যন্ত তার এলাকায় দুইটি মসজিদ করেছেন। এছাড়া বিভিন্ন মন্দিরের উন্নয়নে দান করেছেন অর্থ।

নির্বাচন প্রসঙ্গে নজরুল ইসলাম ঋতু বলেন, সত্যি কথা বলতে নির্বাচন কী তা বুঝিনি। এলাকার মানুষ আমাকে ভালোবেসে দাড় করিয়েছিল। আমার পরিবারের সবাই আওয়ামী লীগ করে। আমার বাবা মারা যাওয়ার সময় বলেছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান দেশের জন্য অনেক কিছু করেছেন, দেশ স্বাধীন করেছেন। তাই যতদিন তোরা বেঁচে থাকবি আওয়ামী লীগের বাইরে যাবি না, নৌকায় ভোট দিবি। প্রয়াত বাবার কথায় নৌকায় ভোট দিলেও কখনো সক্রিয়ভাবে রাজনীতি করা হয়নি।

এর আগে গত উপজেলা নির্বাচনে পার্শ্ববর্তী উপজেলা কোটচাঁদপুরের পিংকি খাতুন নামে এক হিজড়া উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। সে দেশের মধ্যে তৃতীয় লিঙ্গের প্রথম জনপ্রতিনিধির স্বীকৃতি পায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর