বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৪৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
মন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে গিয়ে আ.লীগ নেতার আইফোন চুরি শক্তিশালী হাজীগঞ্জ উপজেলাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে শাহরাস্তি উপজেলা তালাবদ্ধ ঘরে মা ও দুই ছেলের লাশ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে ৭৬ ছাত্রীকে সাইকেল দিলো ছাত্রলীগ নিয়োগের ফাইল স্বাক্ষরে কর্মকর্তাদের দিতে হয় টাকা —- প্রধান শিক্ষক আবু তাহের ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালিত। জলাতঙ্ক প্রতিরোধে মানুষের আচরণ পরিবর্তন করতে হবে: রাষ্ট্রপতি চোখ উঠা রুগীদের যে নির্দেশনা দিল বিমানবন্দর কতৃর্পক্ষ পঞ্চগড়ে নৌকাডুবিতে প্রাণহানি : রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক নির্ধারিত দামে মিলছে না ভোজ্যতেল ও চিনি

হাজীগঞ্জ পৌরসভায় পানির বিল বৃদ্ধি নয় পরিবার প্রথা চালু করা হয়েছে

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ১০৯ বার পঠিত
আপডেট : রবিবার, ৩০ জানুয়ারি, ২০২২, ৮:৫১ অপরাহ্ণ

 

 

হাজীগঞ্জ পৌরসভায় পানির বিল বৃদ্ধি নিয়ে অপ-প্রচার বিষয়ে বিস্তারিত তুলে ধরে সংবাদকর্মীদের অবহিত করেছেন পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী (পানি ও পয়-নিস্বাশন) মো. মাহবুবর রশিদ। রোববার সকালে পৌরসভা কার্যালয়ে তিনি সংবাদর্মীদের বলেন, পানির বিল বৃদ্ধি নয়, এক পরিবার এবং একাধিক পরিবারের মধ্যে বিল সমন্বয় করা হয়েছে। অর্থ্যাৎ হাজীগঞ্জ পৌরসভা কোনরূপ পানির বিল বাড়ায়নি বরং পরিবার প্রথা চালু করেছে।
উদাহরন সরূপ তিনি বলেন, প্রতি পরিবারে চৌমুহনী পৌরসভায় পানির বিল ২৫০ টাকা, লক্ষীপুর পৌরসভায় ৩৮০ টাকা, চাঁদপুর পৌরসভায় ১০০ এবং হাজীগঞ্জ পৌরসভায় ১০০ টাকা। হাফ (আধা) ইঞ্চি সংযোগে চাঁদপুর পৌরসভায় পানির বিল ৩০০ টাকা, লক্ষীপুর পৌরসভায় ৪২০ টাকা এবং চৌমুহনী পৌরসভায় ৩০০ টাকা। অথচ হাজীগঞ্জ পৌরসভায় মাত্র ২০০ টাকা। ৩/৪ সংযোগে চাঁদপুর পৌরসভায় পানির বিল ৪০০ টাকা, লক্ষীপুর পৌরসভায় ৫৮০ টাকা এবং চৌমুহনী পৌরসভায় ৬০০ টাকা। অথচ হাজীগঞ্জ পৌরসভায় মাত্র ৩০০ টাকা।
অপর দিকে ১ ইঞ্চি সংযোগে চাঁদপুর পৌরসভায় পানির বিল ৫০০ টাকা, লক্ষীপুর পৌরসভায় ৮০০ টাকা এবং চৌমুহনী পৌরসভায় ১১০০ টাকা। অথচ হাজীগঞ্জ পৌরসভায় মাত্র ৫৫০ টাকা। ১.৫ (দেড় ইঞ্চি) সংযোগে চাঁদপুর পৌরসভায় পানির বিল ২০০০ টাকা, লক্ষীপুর পৌরসভায় ১৬০০ টাকা। অথচ হাজীগঞ্জ পৌরসভায় মাত্র ৮০০ টাকা।
মাহবুবর রশিদ আরো বলেন, ২০১১ সালের পর অর্থ্যাৎ গত ১২ বছরে পানির বিল বৃদ্ধি করা হয়নি। এই ১২ বছরে বিদ্যুৎ বিল বেড়েছে কয়েকবার। অথচ বিদ্যুৎ বিলের সাথে পানির বিল বৃদ্ধি করার কথা। কারণ, বিদ্যুৎ ছাড়া পানি উৎপাদন সম্ভব নয়। কিন্তু জনবান্ধব মেয়র পৌরবাসীর কথা চিন্তা করে তিনি পানির বিল বৃদ্ধি করেননি। যার ফলে পৌরসভার রাজস্ব থেকে প্রতি বছর লক্ষ লক্ষ টাকা ভতর্‚কি দেয়া হয়েছে।
এ দিন পৌরসভার বার্ষিক সাধারণ সভা এবং মেয়র আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপনের দ্বিতীয় মেয়াদের ১ বছর পূর্তি উপলক্ষে সংক্ষিপ্ত ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আ.স.ম মাহবুব-উল আলম লিপন।

এ সময় আরো বক্তব্য রাখেন, প্যানেল মেয়র-১ ও ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ জাহিদুল আযহার আলম বেপারী, কাউন্সিলর মোহাসীন ফারুক বাদল, মো. শাহআলম, মাইনুদ্দিন মিয়াজী, নির্বাহী প্রকৌশলী মো. তারিকুল ইসলাম, সাংবাদিক গাজী সালাউদ্দিন, মহিউদ্দিন আল আজাদ, কামরুজ্জামান টুটুল, এনায়েত মজুমদার, মনিরুজ্জামান বাবলু প্রমুখ। সভায় সকল কাউন্সিলর ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর