বুধবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন

ফরিদগঞ্জ ইউপি নির্বাচনে বিভিন্ন স্হানে সংঘর্ষের মধ্যে দিয়ে চলছে প্রথম দিনের প্রচার

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ১৬৩ বার পঠিত
আপডেট : মঙ্গলবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২১, ৫:২৭ অপরাহ্ণ

 

মামুন হোসাইনঃ

আগামী ৫ জানুয়ারী ফরিদগঞ্জ ১৩টি ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। উপজেলায় নির্বাচনী প্রচার শুরুর প্রথম দিনেই উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে সংর্ঘষের ঘটনার অভিযোগ উঠেছে। ওই ইউনিয়নগুলোর চেয়ারম্যান প্রার্থীরা এসব অভিযোগ করেছেন। এই ঘটনায় ১ চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ ৫ জন আহত হয়। হামলার ঘটনায় থানা পুলিশ দুইজনকে আটক করেছে। থানায় আহতের পক্ষে একটি মামলা ও অপর এক চেয়ারম্যান প্রার্থী লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে । এছাড়া অপর এক প্রার্থী আদালতে মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।
জানা গেছে, প্রতীক পাওয়ার দিন ২০ ডিসেম্বরে সোমবার দুপুরে ২নং বালিথুবা পূর্ব এবং ১৬নং রূপসা দক্ষিণ ইউনিয়নের প্রতিদ্বন্ধী প্রার্থী ও সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এই সময় ২নং ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী হারুন অর-রশীদের সমর্থক শাহজালাল প্রতিপক্ষের হামলায় গুরুতর আহত হয়।
১৬ নং রূপসা দক্ষিণের সাবেক চেয়ারম্যান স্বতন্ত্র প্রার্থী ওয়াহিদুর রহমানকে তার মনোনয়ন প্রত্যাহারের জন্য চাপ সৃষ্টি করে প্রতিপক্ষের সমর্থকদের কয়েকজন যুবক। এই নিয়ে তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায় সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে। এতে প্রার্থী ওয়াহিদুর রহমান ও তার নাতি তানভীর হোসেন আহত হয়। এই ঘটনায় ওয়াহিদুর রহমান নিজেই ফরিদগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
একেই দিনে রাতেই চরদুঃখিয়া পশ্চিম ইউনিয়নে দুই চেয়ারম্যান প্রার্থী একে অপরের বিরুদ্ধে হামলা, ভাংচুরের অভিযোগ করেছেন। আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী মুরাদ হোসেন অভিযোগ করেন সম্রাট নামে তার এক সমর্থককে কুপিয়ে আহত করে প্রতিদন্ধী স্বতন্ত্র প্রার্থী মো: শাহজাহানের লোকজন। এই ঘটনায় রাতেই ফরিদগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও ফিরোজপুর জনকল্যাণ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: শাহজাহান অভিযোগ করে বলেন, প্রতিদ্বন্ধী আওয়ামীলীগ প্রার্থীর লোকজন তার প্রচার যান, অফিস ও বাসায় হামলা ও ভাংচুর করেছে। তিনি ৯৯৯ ফোন দিয়ে নিজেকে বাঁচাতে পুলিশের সহায়তা নেন। এদিকে একই ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মিজানুর রহমান স্বপন জানান, তিনি কোন হামলা মামলার সাথে জড়িত না হলেও পুলিশ গভীর রাতে তার দুই কর্মীকে আটক করেছে।
এই বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ শহীদ হোাসন জানান, রূপসা দক্ষিণ ইউনিয়নের এক চেয়ারম্যান প্রার্থী লিখিত অভিযোগ করেছেন। চরদুঃখিয়া পশ্চিম ইউনিয়নের সংঘর্ষের ঘটনায় সংবাদ পেয়ে এবং পরে ৯৯৯ এর মাধ্যমে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়েছে। হামলায় আহতের ঘটনায় সোমবার রাতে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। পরবর্তী আইনী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর