বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৭:১০ অপরাহ্ন

দেশের ৮৮ ইউপিতে নৌকা প্রতিক থাকছেনা

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ৮৪ বার পঠিত
আপডেট : মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২১, ৭:২৩ অপরাহ্ণ

আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলার ইউনিয়নগুলোতে আওয়ামী লীগের প্রার্থিতা উন্মুক্ত থাকছে। দলের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর ফলে সংশ্নিষ্ট ৮৮টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রতীক নৌকা থাকবে না।আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর কয়েকজন সদস্য জানিয়েছেন, শরীয়তপুর ও মাদারীপুরের ছয়জন দলীয় এমপির অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে ওই দুই জেলার ইউনিয়নগুলোতে দলীয় প্রার্থিতা উন্মুক্ত রাখা হয়েছে।ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলার ইউনিয়নগুলোতে আওয়ামী লীগের প্রার্থিতা উন্মুক্ত থাকছে। দলের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এর ফলে সংশ্নিষ্ট ৮৮টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রতীক নৌকা থাকবে না।আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর কয়েকজন সদস্য  জানিয়েছেন, শরীয়তপুর ও মাদারীপুরের ছয়জন দলীয় এমপির অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে ওই দুই জেলার ইউনিয়নগুলোতে দলীয় প্রার্থিতা উন্মুক্ত রাখা হয়েছে।ছয় এমপি শরীয়তপুর ও মাদারীপুর জেলায় ইউপি নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রার্থীদের সবাই আওয়ামী লীগের সমর্থক হওয়ায় দলীয় প্রার্থিতা উন্মুক্ত রাখার অনুরোধ করে দলীয় সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে চিঠি দিয়েছেন। এই এমপিরা হচ্ছেন- মাদারীপুর-১ আসনের নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটন, মাদারীপুর-২ আসনের শাজাহান খান, মাদারীপুর-৩ আসনের ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, শরীয়তপুর-১ আসনের ইকবাল হোসেন অপু, শরীয়তপুর-২ আসনের এ কে এম এনামুল হক শামীম ও শরীয়তপুর-৩ আসনের নাহিম রাজ্জাক। শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবিদুর রহমান খোকা শিকদার জানিয়েছেন, ইউপি নির্বাচনে তার জেলায় দলীয় প্রার্থিতা উন্মুক্ত রাখার অনুরোধ জানিয়ে জেলার তিনজন এমপিসহ দলের জেলা সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে কেন্দ্রে চিঠি পাঠিয়েছেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে তার জেলায় তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠেয় ৫৫টি ইউপিতে দলীয় প্রার্থিতা উন্মুক্ত রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। অবশ্য প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে ৯টি ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহাবুদ্দিন আহমেদ মোল্লা বলেছেন, ইউপি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করার জন্য তারা দলীয়ভাবে তৃণমূল পর্যায় থেকে সম্ভাব্য প্রার্থীদের তালিকা কেন্দ্রে পাঠিয়েছেন। সম্ভাব্য প্রার্থীরা দলের মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করে জমা দিয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনের জন্য ২৬ জন দলের মনোনয়ন পেয়েছেন। তবে তৃতীয় ধাপ থেকে দলীয় প্রার্থিতা উন্মুক্ত থাকায় ২৬টি ইউনিয়নের নির্বাচনে নৌকা প্রতীক থাকবে না।আগামী ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে মাদারীপুর সদর উপজেলার শিরখাড়া, বাহাদুরপুর, কুনিয়া, পেয়ারপুর, কেন্দুয়া, মস্তফাপুর, দুধখালী, কালিকাপুর, ছিরারচর, পাঁচখোলা, ঝাউদি, খোয়াজপুর, রাস্তি, ধুরাইল, শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার নাগেরপাড়া, কোদালপুর, আলাওপুর, সামন্তসার, গোসাইরহাট, নলমুড়ি এবং কুচাইপট্টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।এর আগে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠকে গোপালগঞ্জ-২ নির্বাচনী এলাকার আওতাধীন কাশিয়ানী উপজেলাভুক্ত সাতটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে দলীয় প্রার্থিতা উন্মুক্ত রাখার সিদ্ধান্ত হয়। এই ইউনিয়নগুলো দলের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের নির্বাচনী এলাকা।মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠক শেষ :এদিকে, আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের ধারাবাহিক বৈঠক গতকাল সোমবার শেষ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে অনুষ্ঠিত গতকালের বৈঠকে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের আওতাধীন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এই বৈঠকে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলের উপদেষ্টাপরিষদ সদস্য আমির হোসেন আমু, সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কাজী জাফর উল্লাহ, ড. আবদুর রাজ্জাক, লে. কর্নেল (অ.) ফারুক খান, রমেশ চন্দ্র সেন, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, উপদেষ্টাপরিষদ সদস্য রশিদুল আলম এবং প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর