মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০১:৩৫ পূর্বাহ্ন

অভিষেক ম্যাচে দলকে জয়ের মুখ দেখালেন মেসি

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ৪০৫ বার পঠিত
আপডেট : বুধবার, ২৬ জুলাই, ২০২৩, ১২:২০ অপরাহ্ণ

ইউরোপ ছেড়ে যুক্তরাষ্ট্রের ইন্টার মায়ামিতে যোগ দিয়ে নিজেকে যেন নতুন করে চেনাচ্ছেন আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপজয়ী মহানায়ক লিওনেল মেসি। মায়ামির হয়ে অভিষেক ম্যাচে বদলি নেমে ইনজুরি টাইমে ফ্রি-কিক থেকে গোল করে দলকে জয়ের মুখ দেখিয়েছিলেন। এবার অধিনায়ক হিসেবে ম্যাচের শুরু একাদশে নেমে জোড়া গোলের পাশাপাশি ম্যাচজুড়ে দুর্দান্ত পারফর্ম করে ৪-০ গোলের বড় জয় এনে দিয়েছেন মায়ামিকে। শুধু নিজের পারফরম্যান্সই না, টানা ১১ ম্যাচ জয়ের মুখ না দেখা ইন্টার মায়ামির জন্য যেন দেবদূত হয়েই এসেছেন মেসি। হারতে হারতে জয়ের মুখ দেখা ভুলে যাওয়া দলটা যেন এক মেসিকে পেয়েই রাতারাতি বদলে গেলো খোলনচলে।

বুধবার (২৬ জুলাই) সকাল সাড়ে ৫টায় ড্রাইভ পিংক স্টেডিয়ামে লিগ কাপের ম্যাচে আটলান্টা ইউনাইটেডের বিপক্ষে মেসির নেতৃত্বেই মাঠে নামে মায়ামি। মেসি জাদুতে ৪-০ গোলের বড় জয় তুলে নিয়ে ঘরের সমর্থকদের উল্লাসে মাতিয়েছেন জেরার্ডো মার্টিনোর শিষ্যরা। জোরা গোলসহ একটি অ্যাসিস্ট করেছেন মেসি, দলের অন্য দুই গোল করেছেন রবার্ট টেইলর। ক্রুজ আজুলের বিপক্ষেও গোল পেয়েছিলেন এই ফরোয়ার্ড।

 

আটালান্টার বিরুদ্ধে ম্যাচের শুরুতেই অবশ্য গোল প্রায় খেয়েই বসেছিলো মায়ামি। তবে অফসাইডের কারণে সে যাত্রায় রক্ষা পায় মায়ামি। এরপর বাকি ম্যাচের পুরোটাই যেন মেসির জাদু।

মায়ামির অধিনায়কের আর্মব্যান্ড হাতে মাঠে নেমে এদিন শুরু থেকেই নিজের পায়ের জাদুতে ঘরের মাঠের দর্শকদের বুঁদ করে রাখেন মেসি। ম্যাচের মাত্র ৮ মিনিটেই  আটালান্টার জাল খুঁজে নেয় মেসির শট। ম্যাচের সপ্তম মিনিটে আক্রমণে উঠেছিলো আটালান্তা। মায়ামির গোলকিপারের হাত ছুঁয়ে বল গিয়ে লাগে গোলপোস্টে। সেখান থেকে বল পান মেসির সঙ্গেই মায়ামিতে যোগ তার সাবেক বার্সা সতীর্থ সার্জিও বুসকেটস। স্প্যানিশ এই তারকার দুর্দান্ত এক ক্রস থেকে বল পেয়ে পাটা আক্রমণে ওঠেন মেসি। গোলরক্ষককের পাশ দিয়ে শট নিলেও সেই শট আটকে যায় গোলপোস্টে লেগে। তবে ফিরতি বলেই আবার আটালান্টার দুই খেলোয়াড়ের মাঝে ঢুঁকে দ্বিতীয় চেষ্টায় বলে জাল জড়ান মেসি।

ম্যাচের ২২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন মায়ামি। গোলদাতা সেই দেবদূত মেসি। মাঝমাঠ থেকে নিজেই বল টেনে নিয়ে আটালান্টার রক্ষণে ঢুঁকে পড়েন মেসি। ডি-বক্সের সামনে থেকে টেলরকে পাস দেন। দারুণ দক্ষতায় আটালানাটা ডিফেন্ডারদের মধ্য দিয়েই আবার মেসির উদ্দেশ্যে বল বাড়ান টেইলর। ওয়ান টাচে সেই বল জালে জড়িয়ে দলকে আবারো উল্লাসে মাতান মেসি।

 

বিরতির আগে মায়ামির হয়ে তিন নম্বর গোলটি আসে রবার্ট টেলরের পা থেকেই। ৪৩ মিনিটে বেঞ্জামিন ক্রেমাশ্চির বাড়ানো বলে দুর্দান্ত এক ভলিতে আটলান্টার জালে বল জড়ান টেইলর।

দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমেই আবারও মেসি ম্যাজিক। এবার গোল না করে সতীর্থ টেইলরকে দিয়ে গোল করান মেসি। নিজেদের বক্সে প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়ের ভুল পাসে বল বল পেয়ে যান মেসি । মাঝমাঠ থেকে একাই বল নিয়ে আক্রমণে ওঠেন মেসি। ডি-বক্সে ঢোকার ঠিক আগে তিনি পাস দেন টেইলরকে। ৫৩ মিনিটে বাঁ পায়ের শটে দলের স্কোর ৪-০ করেন টেইলর।

ম্যাচের ৭৮ মিনিটে মেসিকে তুলে নেন মায়ামি কোচ মার্টিনো। এর কিছু সময় আগে তুলে নেন বুসকেটসকেও। ম্যাচের ৮৬ মিনিটে আটলান্টার হয়ে ব্যবধান কমানোর সুযোগ পেয়েছিলেন আর্জেন্টাইন তরুণ থিয়াগো আলমাদা। তবে পেনাল্টি থেকে গোল করতে পারেননি এই তরুন ফুটবলার। শেষ পর্যন্ত ৪-০ গোলের বড় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে মায়ামি।

এই নিয়ে মায়ামির জার্সিতে মাত্র ১১৮ মিনিট মাঠে নেমেই ৩ গোলের পাশাপাশি এক অ্যাসিস্ট করে ফেলেছেন মেসি। টানা দ্বিতীয় জয়ে লিগ কাপের নকআউট রাউন্ড-১৬ তে উঠে গেল মায়ামি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর