মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ন

দ্রুত গলছে হিমালয়ের বরফ, ভয়াবহ ঝুঁকিতে এশিয়া

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ১৫১ বার পঠিত
আপডেট : মঙ্গলবার, ২০ জুন, ২০২৩, ৮:৫৯ অপরাহ্ণ

এশিয়ায় বসবাসকারী মানুষদের জন্য পিলে চমকানো তথ্য দিলেন গবেষকরা। তারা বলছেন, স্বাভাবিকের চেয়ে দ্রুত গলে যাচ্ছে হিমালয়ের বরফ। ফলে দেখা দিতে পারে ভয়াবহ বন্যা। এতে ঝুঁকিতে পড়বে এ মহাদেশের প্রায় ২০০ কোটি মানুষ। একই সঙ্গে দেখা দেবে সুপেয় পানির তীব্র সংকট।

গবেষকরা বলছেন, হিমালয় পর্বতমালা থেকে উৎপন্ন হওয়া ১০টি নদীর ভাঁটি অঞ্চলে যারা বসবাস করেন, তারা সবচেয়ে ঝুঁকিতে রয়েছেন। কারণ, জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিকর প্রভাবে ৭৫ শতাংশ দ্রুত গলছে হিমালয়ের হিমবাহ।

বিশ্বের পর্বতমালার পরিস্থিতি নিয়ে গবেষণা করা ইন্টারন্যাশনাল সেন্টার ফর ইন্টিগ্রেটেড ডেভেলপমেন্ট অব মাউন্টেন রিজিয়নসের (আইসিইএমওডি) এক গবেষণা প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১১ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে হিমালয়ের বরফ গলেছে আগের দশকের তুলনায় ৭৫ গুণ বেশি দ্রুত। এ ধারা অব্যাহত থাকলে চলতি শতকের মধ্যেই হিমবাহগুলোর ৮০ শতাংশ উধাও হয়ে যাবে, যা এশিয়া মহাদেশের জন্য ভয়াবহ বার্তা।

আলজাজিরা বলছে, হিন্দুকুশ হিমালয় অঞ্চলের হিমবাহগুলো আশপাশের পাহাড়ি এলাকার ২৪ কোটি মানুষের পানির উৎস। এ ছাড়া নিচের দিকে নদী উপত্যকার আরও ১৬৫ কোটি মানুষ নির্ভরশীল হিমালয়ের পানির ওপর।

গঙ্গা, সিন্ধু, মেকং, হোয়াংহো, ইরাবতীসহ বিশ্বের বড় বড় ও গুরুত্বপূর্ণ ১০টি নদীর পানির উৎস হিমালয়ের হিমবাহগুলো। সেগুলো প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে কোটি কোটি মানুষের খাদ্য, জ্বালানি ও দূষণমুক্ত বায়ুর জোগান দেয়। একই সঙ্গে বিপুল মানুষের জীবিকার অনেকটাই এর ওপর নির্ভরশীল। ফলে তারাই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবেন বলে ধারণা বিজ্ঞানীদের।

এর আগে এক গবেষণায় দেখা গেছে, ২০১৫ সালের প্যারিস চুক্তি মেনে যদি বৈশ্বিক তাপমাত্রা ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস করে বাড়ে, তাহলে হিমবাহের অর্ধেক ২১০০ সালের মধ্যে গলে নিঃশেষ হবে।

আইসিআইএমওডির প্রতিবেদনের প্রধান লেখক ফিলিপাস ওয়েসটার জানান, তাপমাত্রা বাড়লে হিমবাহগুলো গলবে, এটা স্বাভাবিক। কিন্তু এগুলো গলছে অস্বাভাবিক হারে, দ্রুততার সঙ্গে।

আর যদি তাপমাত্রা বৃদ্ধি শিল্পযুগের আগের অভীষ্ট দেড় ডিগ্রি সেলসিয়াসে সীমাবদ্ধ থাকতে পারে, তবুও ৩৬ শতাংশ হিমবাহ উধাও হবে। তবে আইসিআইএমওডি বলছে, যে হারে এখন গলছে, তাতে চলতি শতকের মধ্যেই ৮০ শতাংশ হিমবাহ উধাও হয়ে যাবে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, হিমবাহ এতটাই দ্রুত গলছে যে এর ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়া কঠিন। ভাঁটির দেশ হওয়ায় এই ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে বাংলাদেশের নামও।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর