মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০২:৩৭ পূর্বাহ্ন

ফরিদগঞ্জে টেন্ডারকৃত রাস্তায় কাজ না করিয়ে অন্য স্থানে করায় মানববন্ধন

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ৪৭ বার পঠিত
আপডেট : শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারি, ২০২৩, ৭:৫৫ অপরাহ্ণ

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে এলজিইডির টেন্ডারকৃত রাস্তায় কাজ না করিয়ে অন্য রাস্তায় করাকে কেন্দ্র করে এলাকাবাসি মানববন্ধন করেছে। ২৬ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার উপজেলার ফরিদগঞ্জ দক্ষিন ইউনিয়নের হর্নি দূর্গাপুর এলাকায় স্থানীয় জনতা এ মানববন্ধন করেন।

জানা যায়, ফরিদগঞ্জে টেন্ডারকৃত রাস্তায় কাজ না করে অন্য রাস্তায় কাজ করার অভিযোগ উঠে। এ নিয়ে এলাকাতে বড় ধরনের সংর্ঘষের আশঙ্কা করছে স্থানীয়রা। একটি মহলের ক্ষমতাবলে রাস্তা পরিবর্তিত হয়েছে বলে জানাগেছে। এক সড়কের বরাদ্দ অন্য সড়কে করিয়ে নিতে চায় ঐ চক্রটি। এতে সৃষ্টি হয় দু’সড়কের চলাচলকারীদের বিরোধ। দ্রুত বিরোধ সমাধানের দাবি এলাকাবাসির। এদিকে এক সড়কের টেন্ডারকৃত কাজ অন্য সড়কে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান কিভাবে করে, তা আবার এলজিইডির অনুমতি নিয়ে এমন প্রশ্ন সচেতন নাগরিকদের।

ঘটনাস্থলে গিয়ে জানাযায়, উপজেলার ফরিদগঞ্জ দক্ষিন ইউনিয়নের গ্রামীন-বি সড়ক কালিবাজার পাকা সড়ক থেকে মদিনা বাজার সড়ক হইতে শুরু করে হর্নি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় হয়ে সন্তোষপুর বেইলী ব্রিজ পর্যন্ত সংযোগ স্থাপন করা। যেই সড়কের ১৫০০মিটার এর আইডি-৪১৩৪৫৫২১৩ সড়কের মধ্যে ১০০০ মিটার সড়কের নির্মানের জন্য ৮২,২০,৬২০ টাকা ব্যায়ে টেন্ডার প্রক্রিয়ার মধ্যে দিয়ে শেষ হয়। সড়কটি নির্মানের জন্য ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান গত কয়েকদিন পূর্বে সড়কের কাজ শুরু করেন। এসময় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ৪০০ মিটার সড়কের কাজ খননের পর তা বন্ধ করে দেন এবং ৪১৩৪৫৫২১৫ আইডি নামে সড়কের কাজ শুরু করেন। এ নিয়ে শুরু হয় দুই রাস্তায় চলাচল কারীদের মাঝে বিরোধ। উক্ত ঘটনায় টেন্ডারকৃত রাস্তায় কাজ করার জন্য দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করে এলাকাবাসী।

এসময় এলাকাবাসি দাবি জানিয়ে বলেন, কোন প্রকার অপশক্তির প্রভাবে তাদের সড়কের কাজ যাতে অন্য কোন রাস্তায় না হয় সেই জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন তারা।

স্থানীয় বাসিন্দা মিজান, তাজুল ইসলাম ও সোনিয়া বলেন, বহু বছর ধরে সড়কটি কাঁচা থাকায় স্কুল, কলেজ শিক্ষার্থী ও জনসাধারণের চলাচলে মারাত্বক দূর্ভোগ পোহাতে হতো। বিষয়টি স্থানীয় এমপি মহদোয়ের দৃষ্টি গোচর হলে তার সুপারিশে এ সড়কের কাজের অনুমতি মিলে। কিন্তু একটি অসাধু চক্র তাদের ব্যক্তিগত সুবিদার জন্য গণমানুষের অসুবিধা সৃষ্টি করছে। আমরা চাই এমপি মহদোয়ের সম্মান রেখে গণমানুষের চলাচলের জন্য এই সড়কটি যেনো দ্রুত সমাধান করে সংশ্লিষ্ট মহল।

এ বিষয়ে ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের সত্ত্বাধিকারী আরিফুর রহমান আজাদ বলেন, আমাকে উপজেলা এলজিইডির অফিস যেই ভাবে বলছে, আমি সেই ভাবে কাজ করছি।

ফরিদগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী আবরার আহমেদ’র কাছে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি কোন কথা বলতে রাজি হয়নি।

চাঁদপুর জেলা সিনিয়র সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী ফুয়াদ হোসেন বলেন, বিষয়টি আমরা অবগত হয়েছি। সরেজমিন তদন্ত করে এসেছি। সড়কটি যেই আইডিতে হওয়ার কথা সেই আইডিতে নেই। ঠিকাদার যে সড়কের কাজ করছে সেই সড়কটি অনুমোদনের জন্য মন্ত্রনালয়ে পাঠিয়েছি। এটা অনুমোদন হয়ে আসলে দু’টি সড়কের কাজ এক সাথে করবো।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর