বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ১১:১০ পূর্বাহ্ন

রাত পোহালেই ফরিদগঞ্জে সমবায় সমিতির নির্বাচন- সুষ্ঠ ভোট নিয়ে শঙ্কায় প্রার্থীরা

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ৫২ বার পঠিত
আপডেট : বুধবার, ২৩ মার্চ, ২০২২, ৬:৫৯ অপরাহ্ণ

 

মামুন হোসাইনঃ

ফরিদগঞ্জ উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতির নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অংশ নেয়া প্রার্থীরা সুষ্ঠ ভোট নিয়ে শঙ্কায় রয়েছে। সমিতির ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল ২৪ মার্চ বৃহস্পতিবার। ১৯৮ জন ভোটার ভোট প্রদান করবেন সকাল ১০ টা থেকে বিকেল ৪ ঘটিকা পযর্ন্ত। এবারের নির্বাচনে সভাপতি পদে রয়েছেন ৪ জন প্রার্থী। সভাপতি পদে প্রার্থীরা হচ্ছেন যথাক্রমে (নামের অদ্যাক্ষর অনুসারে) ৪নং কেএসএস সমিতি লিঃ-এর সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক কামাল পাঠান, ২নং উত্তর কেরোয়া কেএসএস সমিতি লিঃ-এর সভাপতি ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহাবুব আলম সোহাগ, চরপাড়া কেএসএস সমিতি লিঃ-এর সভাপতি ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি নূরনবী মানিক, দিয়ারমন্ডল কেএসএস সমিতি লিঃ-এর সভাপতি ও ফরিদগঞ্জ উপজেলা কেন্দ্রীয় সমিতির নির্বাচিত বর্তমান সভাপতি ও ছাত্রলীগের সাবেক নেতা আবদুছ সালাম জুয়েল।
সহ-সভাপতি পদে ২ জন প্রার্থী হচ্ছেন ৩নং সকদি রামপুর কেএসএস লিঃ-এর সহ-সভাপতি ফখরুজ্জামান মিয়া ও দক্ষিণ কাছিয়াড়া কেএসএস সমিতি লিঃ-এর সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম।
১২ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির সভাপতি ও সহ-সভাপতি পদেই বিশেষ করে এবারের নির্বাচনে ব্যাপক উৎসাহ ও উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে। সমিতি প্রাঙ্গণে প্রার্থীদের ব্যানার ফেস্টুন দিয়ে সাজিয়ে তোলা হয়েছে। প্রতিদিনই প্রার্থী ও ১শ’ ৯৮টি সমিতির ভোটাদের কাছে ভোট চেয়ে প্রার্থীরা সময় পার করে। সভাপতি পদ প্রার্থী আব্দুস সালাম জুয়েল জানান আমি একজন প্রার্থী হিসেবে চাই নির্বাচন সুষ্ঠ পরিবেশে হোক।সুষ্ঠ নির্বাচন করতে চাই পযাপ্ত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।বিভিন্নভাবে শুনতেছি কয়েকজন প্রার্থী বহিরাগত লোক ভাড়া করছে, জোর করে নির্বাচিত হতে চায়, আমি প্রশাসনের কাছে আবেদন জানাই আমাদের প্রয়োজন একটা অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন।আসা করি প্রশাসন সে ব্যবস্হা গ্রহণ করবে। সভাপতি পদে অপর প্রার্থী মাহবুব আলম সোহাগ বলেন নির্বাচনে ভোটার নিয়ে শঙ্কায় আছে, রিটারিং কর্মকর্তা এখনো আমাদের ভোটার তালিকা দিচ্ছে না, ভোটার খুঁজতে খুঁজতে আমাদের সমস্যা হচ্ছে। তারপর ও ভোট অবাধ ও সুষ্ঠ হোক।উপজেলা কেন্দ্রীয় সমবায় সমিতির নির্বাচনে রিটারিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ মাহমুদল হাসান জানান নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ করার জন্য ম্যাজিস্ট্রেট, প্রিজাইডিং অফিসার, পুলিশ ও আনসারবাহিনী থাকবে। নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠ হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিউলী হরি বলেন নির্বাচনটি অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার স্বার্থে সরকারি প্রশাসন কঠোর অবস্থানে রয়েছে।নির্বাচন অবাধ এবং সুষ্ঠ হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর