মঙ্গলবার, ২৮ নভেম্বর ২০২৩, ১০:৪৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
তারেকের নেতৃত্ব না মানা নেতারা নির্বাচন করবেন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নেতাকর্মীদের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটাতে চাঁদপুর-৫ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হচ্ছেন গাজী মাঈনুদ্দিন চাঁদপুর-৫ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পেলেন ওমর ফারুক ২৮৯ আসনে জাতীয় পার্টির মনোনয়ন পেলেন যারা মনোনীত প্রার্থীদের চিঠি বিতরণ করেছে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দিলেও জোটের সঙ্গে সমন্বয় হবে: তথ্যমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে আরও ১০ যানবাহনে আগুন বিএম পরীক্ষায় পাশের হার ৯৭.৭৮, শীর্ষে হাজীগঞ্জ সরকারি মডেল পাইলট হাই স্কুল এন্ড কলেজ চাঁদপুরের ৫টি আসনের দুইটিতে পরিবর্তিত নৌকার প্রার্থী আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকা, কে কোথায় দেখে নিন

ফরিদগঞ্জে বৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ১০২ বার পঠিত
আপডেট : শনিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২২, ২:৪৭ অপরাহ্ণ

 

মামুন হোসাইনঃ
চাঁদপুর ফরিদগঞ্জে মাঘের হঠাৎ টানা বৃষ্টিতে ফসলের ক্ষেতে পানি জমে গিয়ে ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা দেখছেন কৃষকরা। বৃহস্পতিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) রাত থেকে পরদিন শুক্রবার সারাদিন ঝড়ো হাওয়া ও বৃষ্টিপাতে ফসলি ক্ষেতে পানি জমে যাওয়ায় এ ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে।শনিবারেও আকাশ মেঘলা দেখা যাচ্ছে। জানা যায় উপজেলার ১৫ টি ইউনিয়ন ইউনিয়ন এবং একটি পৌরসভায় চলতি মৌসুমে ইরি বোরো ধান চাষের লক্ষমাত্রা ছিল ২০ হাজার ২১০ হেক্টর জমিতে। ইতোমধ্যে প্রায় ১৪ হাজার হেক্টর জমিতে ধান রোপন কাজ সম্পন্ন হয়েছে। পাশাপাশি এবারে উপজেলায় ৩৬৫ হেক্টর জমিতে কৃষক উচ্চ ফলনশীল সরিষার চাষ করেন। আগামী এক থেকে দুই সপ্তাহের মধ্যে প্রতিটি গ্রামের কৃষকরা পুরোদমে সরিষা কাটামাড়াই কাজ শুরু করবেন।
অন্যদিকে চলতি মৌসুমে উপজেলায় আলুর লক্ষমাত্রা ছিল ১৬শ ৭০ হেক্টর জমিতে এর মধ্যে হঠাৎ বৃষ্টিপাতে প্রায় ৪০টির মত গ্রামের রোপণকৃত ধান, আলু, সরিষাসহ শীতকালীন ফসলের ক্ষেতে পানি জমে গেছে। ফসলী জমি থেকে পানি না সরাতে পারলে এসব ফসল নষ্ট হয়ে যাবে বলেও ধারণা করছেন কৃষকরা। এ বিষয়ে পৌরসভার কেরোয়া গ্রামের কৃষক ছলেমান, শওকত এবং নেচার আহমেদ বলেন, চলতি মৌসুমে আমরা প্রায় ২ একর জমিতে সরিষা চাষ করেছি। হঠাৎ বৃষ্ঠিপাতে আমরা আমাদের ফসলি মাঠে গিয়ে দেখি সরিষার গাছগুলো বাতাসে মাটিতে নুইয়ে পড়েছে এবং জমিতে পুরোদমে পানি জমে রয়েছে। কোন রকমে জমি থেকে পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা করেছি। আজও আকাশ মেঘলা, যদি আকাশ খরা না করে তাহলে ফসল ঘরে আসার সম্ভাবনা রয়েছে না হলে ফসলের খরচ নিয়েও শঙ্কায় রয়েছেন তিনি।এই দিকে উপাধিক গ্রামের কৃষক জাবেদ ও হারুন বলেন আমরা ১ একর জমিতে আলু চাষ করেছি,বৃষ্টিতে আমাদের ক্ষতির পরিমাণ বেশি, আলু টিকবে কিনা এই নিয়ে শঙ্কায় আছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আশিক বিন জামান জানান, বর্তমানে ক্ষয়ক্ষতির সঠিক হিসাব দেয়া সম্ভব না। এর মধ্যে দু’দিনের টানা রোদ পাওয়া গেলে বৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্থ আলুর ক্ষতিটা অনেক কম হবে। তবে বিরুপ আবহাওয়া থাকলে ডুবে যাওয়া ফসল বিশেষ করে আলুর ক্ষতি ব্যাপক হারে হতে পারে বলে জানান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর