শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৮:৩৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
আমিন কেরানী ফরিদগঞ্জের কাঁশারা সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রসার সভাপতি নির্বাচিত বাকিলা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী জুলহাস মিয়ার মনোনয়নপত্র দাখিল ফরিদগঞ্জ আন-নূর জামে মসজিদের কার্যক্রম উদ্বোধন রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চাইলে খালেদা বিদেশ যেতে পারেন: হানিফ নাঈমকে চাপা দেওয়া গাড়ির মূল চালক গ্রেপ্তার সড়ক দূর্ঘটনায় প্রান গেল ৩ কলেজের শিক্ষার্থী কচুয়ায় বিআরটিসি-সিএনজির সংঘর্ষে ৩ কলেজ শিক্ষার্থী নিহত ও আহত- ৩ জন \ এলাকায় শোকের মাতম চাঁদপুরে বাস-সিএনজি সংঘর্ষে ৩ কলেজ শিক্ষার্থীর মৃত্যু দায়িত্ব নিয়েই পদত্যাগ করলেন সুইডেনের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী তেজগাঁও বহুতল ভবনে আগুন পাকিস্তান ক্রিকেট দলের বিরুদ্ধে মামলা

হাজীগঞ্জে সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্ত স্থানসমূহ পরিদর্শনে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ৬৯ বার পঠিত
আপডেট : মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর, ২০২১, ১১:০১ অপরাহ্ণ

হাজীগঞ্জ (চাঁদপুর) প্রতিনিধি

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে পূজামন্ডপে হামলা ও পুলিশ-জনতা সংঘর্ষে পুলিশের গুলিতে ৫ জন নিহতের ঘটনায় উদ্ভুত পরিস্থিতি ও ক্ষতিগ্রস্ত স্থানসমূহ দেখতে সরজমিনে পরিদর্শনে এসেছেন, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এমপি। মঙ্গলবার বিকালে তিনি ভাংচুরকৃত মন্দির পরিদর্শন করেন এবং হিন্দু ধর্মালম্বী নেতৃবৃন্দের সাথে কথা বলেন। এরপর তিনি এটি অপশক্তির কাজ এবং পরিকল্পিত ঘটনা উল্লেখ করে সংবাদকর্মীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন।
তিনি বলেন, এটা শুধুমাত্র ধর্মীয় সম্প্রীতি ধ্বংস করা নয়, নির্বাচনকে সামনে রেখে দেশকে অস্থিতিশীল করার অপচেষ্টা মাত্র। তারা (অপশক্তি) নানাভাবে চেষ্টা করেছে, কোন কিছুতেই যখন কাজ হচ্ছেনা। তখন বিভিন্ন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের উৎসবে হামলার মধ্য দিয়ে তারা দেশের স্থিতিশীলতা এবং ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করতে চায়।
তিনি সনাতন ধর্মালম্বীদের আশ্বস্ত করে বলেন, দেশের যেসব স্থানে এসব ঘটনা ঘটেছে এবং এই ঘটনার সাথে যারা জড়িত আছে, সরকার অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে। আমাদের প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার আপনাদের পাশে আছে। আমাদের স্থানীয় প্রশাসন, পুলিশ, গণমাধ্যম ও আমাদের দলীয় নেতাকর্মীরাসহ শুভবুদ্ধির মানুষেরসহ আমরা সবাই আপনাদের পাশে আছি।
সংবাদর্মীদের এক প্রশ্নের জবাবে ডা. দীপু মনি বলেন, আমাদের এই সাম্প্রদায়ীক সম্প্রীতির দেশে এমন ঘটনা ঘটার উচিত ছিল না। কিন্তু তারপরেও অপশক্তির মাধ্যমে এমন ঘটনা ঘটে গেছে। ৭১ এর পরাজিত অপশক্তি এবং ৭৫ এর ঘাতক তারাই কিন্তু কোন না কোন চেহারায় আমাদের এই ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্ট করার অপচেষ্ট চালাচ্ছে।
তিনি আরো বলেন, এই উগ্র সাম্প্রদায়ীক শক্তি রামুতে, আমাদের বাইতুল মোকাররম মসজিদেও আঘাত হেনেছিলো এবং কুরআন মাজীদ পুড়িয়েছিলো। কাজেই এই অপশক্তি কোন ধর্মের মানুষকেই রেহাই দেয়নি। তাই এই ধরনের ঘটনা আর যেন পূণরাবৃত্তি না ঘটে সেজন্য আমাদেরকে সজাগ, সর্তক ও সচেষ্ট এবং সক্রিয় থাকতে হবে। সেখানে গণমাধ্যমেরও একটা বড় ভুমিকা রয়েছে বলে তিনি জানান।
অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিদেশী শক্তি আছে কিনা সেটি তদন্তের বিষয়। তবে বিদেশে বসে যে কোন কোন অপশক্তির এবং অপশক্তির ধারব-বাহক বিদেশে বসে ষড়যন্ত্রের জাল বুনছে এটি তো স্পষ্ট। তাদের বিভিন্ন কথা-বার্তা নানা জায়গায় পাওয়া যাচ্ছে। রাজনীতির নামে যারা অপ-রাজনীতি করে তারাই ২০১৩, ২০১৪ সালে মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। আজকেও তারা অস্থিতিশীল একটা পরিস্থিতি তৈরি করতে চায়।
তিনি আরো বলেন, আমাদের সজাগ থাকতে হবে কেউ যেন কোন ভাবে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি এবং ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা করতে না পারে। আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে কোন অপশক্তি আমাদের এই সম্প্রীতি নষ্ট এবং মানুষের নিরাপত্তা ও আমাদের অগ্রযাত্রাকে বিঘিœত করতে পারবে না।
এ সময় জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ, পুলিশ সুপার মো. মিলন মাহমুদ, হাজীগঞ্জের উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী মাইনুদ্দিন, ফরিদগঞ্জের উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জাহিদুল ইসলাম রোমান, চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র এ্যাড. জিল্লুর রহমান জুয়েল, হাজীগঞ্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডা. জে আর ওয়াদুদ টিপু, কোষাধ্যক্ষ রোটা. আহসান হাবিব অরুন, হাজীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব হেলাল উদ্দিন মিয়াজীসহ উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য, কুমিল্লা শহরের দিঘিরপাড়ের একটি দুর্গাপূজার মধ্যে হনুমান মূর্তির কোলে পবিত্র কোরআন শরিফ রাখার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে বুধবার রাত আটটার দিকে হাজীগঞ্জে তৌহিদি জনতা একটি মিছিল হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ সড়কের দিক থেকে হাজীগঞ্জ বাজারে দিকে আসে।
পরবর্তীতে মিছিলটি বাজার হাজীগঞ্জ বাজার দুইবার প্রদক্ষিণ করে পশ্চিম বাজারস্থ রাজা লক্ষী নারায়ন জিউর আখড়ায় অবস্থিত পূজামধ্যে পের সামনে আসলে মিছিল থেকে কে বা কারা পূজা মন্ডপের দিকে ইট-পাটকেল ছুড়ে মারে। এতে ঘটনাস্থলে থাকা পুলিশ মিছিলকারীদের প্রতিরোধের চেষ্টা করলে পুলিশের উপর ইট-পাটকেল ছুড়ে মারে মিছিলকারীরা।
এসময় মিছিলকারীর পুলিশের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা চালালে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার সৃষ্টি হয় এবং পুলিশ আত্মরক্ষার্থে গুলি ছুড়ে। এদিকে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ায় এবং পুলিশের গুলিতে ৫ জন নিহত এবং ৪ জন আহত হয়। এছাড়া মিছিলকারীদের ইট-পাটকেলের আঘাতে ১৭ জন পুলিশসহ সাংবাদিক ও পথচারী আহত হয়েছেন।

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর