সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা ও নাগরিক সেবা নিশ্চিত করবো। ……… চেয়ারম্যান প্রার্থী বাহাউদ্দিন খান বাহার ৯নং গোবিন্দপুর উত্তর ইউপিতে দলীয় মনোনয়নে এগিয়ে সাহাজুদ্দিন মিজি রিয়াদ আজ শেখ রাসেলের জন্মদিন ১৮ অক্টোবর, আজকের এই দিনে টিভিতে আজকের খেলা স্থানীয় ইউপি নির্বাচনে ত্যাগী ও পরিক্ষিতদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  মনোনীত করবেন …..সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড.মহীউদ্দীন খান আলমগীর এমপি । হাজীগঞ্জে এসে সরকারের পদত্যাগ চেয়ে নিরপেক্ষ জাতীয় সরকার গঠনের আহবান: ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ কনস্টেবল নিয়োগ পরীক্ষার সময়সূচি পরিবর্তন পুরাতন মোবাইল দিয়ে কোটি টাকার ব‍্যবসা

বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস আজ

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ৩৯ বার পঠিত
আপডেট : রবিবার, ১০ অক্টোবর, ২০২১, ১০:০৪ পূর্বাহ্ণ

আজ রবিবার (১০ অক্টোবর) বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস। ‘অসম বিশ্বে মানসিক স্বাস্থ্য’ প্রতিপাদ্য নিয়ে অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও পালিত হচ্ছে দিবসটি। মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য প্রতিবছর ১০ অক্টোবর নানান আয়োজনের মধ্য দিয়ে সারা বিশ্বে এই দিবসটি পালন করা হয়।

দিবসটি উপলক্ষে সরকারি ও বেসরকারি উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ বিষয়ে পৃথক বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবস হলো পৃথিবীর সবার মানসিক স্বাস্থ্যশিক্ষা, সচেতনতার দিন। এটি ১৯৯২ সালে প্রথম পালন করা হয়। কিছু দেশে একে মানসিক রোগ সচেতনতা সপ্তাহের অংশ হিসেবে পালন করা হয়।

বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ফর চাইল্ড অ্যান্ড অ্যাডোলেসেন্ট মেন্টাল হেলথ (বিএসিএএমএইচ) সভাপতি ও জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের সহযোগী অধ্যাপক ডা. হেলালউদ্দিন আহমেদ বলেন, দেশে মানসিক ব্যাধির ব্যাপকতা অনেক বেশি। চিকিৎসাসেবা অবহেলিত বিশেষ করে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর আক্রান্তরা এ রোগে চিকিৎসা পান না। মানসিক স্বাস্থ্য নিশ্চিতে সরকারি সুপরিকল্পিত নীতিমালা, প্রশিক্ষিত মনোরোগ চিকিৎসক তথা স্বাস্থ্যকর্মী, অপর্যাপ্ত অর্থ বরাদ্দ ও কুসংস্কারজনিত কারণে মানসিক রোগের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না। করোনাকালে মানসিক রোগের ব্যাপকতা বৃদ্ধি পেয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে প্রতি ৪০ সেকেন্ডের মধ্যে কেউ না কেউ আত্মহত্যায় প্রাণ হারান। আত্মহত্যাজনিত মৃত্যুর অধিকাংশই প্রতিরোধযোগ্য। অধিকাংশ ব্যক্তিই আত্মহত্যার সময় কোনো না কোনো মানসিক রোগে আক্রান্ত থাকেন। সাধারণত সেটা গুরুত্ব দেওয়া হয় না বা মানসিক রোগ নিশ্চিত হলেও যথাযথ চিকিৎসা করা হয় না বলেই আত্মহত্যা বেড়ে যাচ্ছে। মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নয়নের মাধ্যমে আত্মহত্যার এ হার কমিয়ে আনা সম্ভব।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর