শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০৬:১৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :
মন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে গিয়ে আ.লীগ নেতার আইফোন চুরি শক্তিশালী হাজীগঞ্জ উপজেলাকে হারিয়ে সেমিফাইনালে শাহরাস্তি উপজেলা তালাবদ্ধ ঘরে মা ও দুই ছেলের লাশ প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে ৭৬ ছাত্রীকে সাইকেল দিলো ছাত্রলীগ নিয়োগের ফাইল স্বাক্ষরে কর্মকর্তাদের দিতে হয় টাকা —- প্রধান শিক্ষক আবু তাহের ফরিদগঞ্জে আওয়ামী লীগের বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন পালিত। জলাতঙ্ক প্রতিরোধে মানুষের আচরণ পরিবর্তন করতে হবে: রাষ্ট্রপতি চোখ উঠা রুগীদের যে নির্দেশনা দিল বিমানবন্দর কতৃর্পক্ষ পঞ্চগড়ে নৌকাডুবিতে প্রাণহানি : রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক নির্ধারিত দামে মিলছে না ভোজ্যতেল ও চিনি

মসজিদ থেকে জঙ্গি সন্দেহে আটক ৪৫

মেঘনার আলো ২৪ ডেস্ক / ১৯২ বার পঠিত
আপডেট : শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৭:৩৩ অপরাহ্ণ

দিনাজপুরের সদর ও বিরলে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের অভিযানে জঙ্গি সন্দেহে প্রায় ৪৫ জনকে আটক করা হয়েছে। কয়েকটি মসজিদে অভিযান চালানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুজন সরকার। তবে নির্দিষ্ট কত জনকে আটক করা হয়েছে তা তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি।

কথা হলে তিনি জানান, ঢাকা থেকে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা কয়েকটি মসজিদে অভিযান চালিয়েছেন। তারা আমাদের সহযোগিতা চেয়েছিল, এই হিসেবে তাদের সহায়তার জন্য দিনাজপুর থেকে পুলিশ সদস্যদের দেওয়া হয়েছিল।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত (১৭ সেপ্টেম্বর) ১২টার দিকে ঢাকার কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট দিনাজপুর সদর উপজেলার মহারাজা মোড়ের পূর্ব দিকে বাইতুল ফালাহ জামে মসজিদে অভিযান চালায়। এ সময় সেখান থেকে ১২ জনকে আটক করা হয়। একইসময়ে বিরল উপজেলার বিরল বাজার জামে মসজিদে অভিযান চালিয়ে ১৭ জনকে আটক করে ইউনিটের সদস্যরা। এছাড়া উপজেলা আরও দুটি মসজিদ থেকে প্রায় ১৫ জনকে আটক করা হয়।

দুটি উপজেলার অভিযানেই স্থানীয় পুলিশ সদস্যরা সহযোগিতা করেন।

পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, তাবলিগ জামায়াতের একটি দল দিনাজপুর সদর ও বিরল উপজেলায় বিভক্ত হয়ে নাশকতার পরিকল্পনা করছে, এমন তথ্যের ভিত্তিতে রাতে দিনাজপুরে আসে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা। পরে তারা স্থানীয় পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে।

বাইতুল ফালাহ জামে মসজিদের খাদেম আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বৃহস্পতিবার ২২ জন মানুষ ঢাকা থেকে আসেন। তাদের মধ্যে ১২ জন এখানে অবস্থান করে বাকিরা অন্য মসজিদে থাকার কথা বলে চলে যান। রাতে এশার নামাজের পরে আমরা বাসায় চলে গেলে তারা এই মসজিদেই অবস্থান করছিল। পরে রাতে শুনতে পারি তাদেরকে পুলিশ ধরে নিয়ে গেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

এক ক্লিকে বিভাগের খবর